সারা বাংলা

ভারতে গিয়ে পজেটিভ হয়ে ফিরেছেন ১২ বাংলাদেশী : দেশে সংক্রমণের শংকা

করোনা ভাইরাসের নেগেটিভ সনদ নিয়ে ভারতে গিয়ে পজিটিভ হয়ে বাংলাদেশে এসেছেন ১২ জন। বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে গত ১৫ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত ১০ দিনে ভারত থেকে বাংলাদেশ এসেছেন ৩ হাজার ৮০১ জন। এর মধ্যে ১২ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গেছে। ভারতফেরত এই করোনা রোগীদের নিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগে রীতিমতো তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।

স্বাস্থ্য বিভাগ আশঙ্কা করছে, তাদের দেহে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট রয়েছে। এরই মধ্যে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান ১০ জন করোনা রোগী। এদের মধ্যে ভারতফেরত রয়েছেন সাত জন। তাদের সবাইকে আবারও পুলিশ চিহ্নিত করে তাদের নিজ নিজ জেলার হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেছে। তবে এর মধ্যে কত জনকে তারা সংক্রমিত করেছে, তার কোনো হিসাব নেই।

বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকেরা বলছেন, ভারতে আশঙ্কাজনক হারে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ছড়াচ্ছে। ডাবল ও ট্রিপল মিউট্যান্ট ভাইরাসের কথা শোনা যাচ্ছে। ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গসহ দেশটির অন্তত চারটি রাজ্যে এই ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। নতুন এই ভ্যারিয়েন্টের কারণে বাংলাদেশ চরম ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট দেশে ছড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ। সীমান্তে স্বাস্থ্যবিধি মানতে কঠোর ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করার তাগিদ দিয়ে বিশেষজ্ঞরা আরো বলেন, ভারত থেকে যারা আসবে, তাদের দুই সপ্তাহ বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে রাখতে হবে। শুধু যাদের করোনা নেগেটিভ আসবে, তাদের ছেড়ে দিতে হবে। এই ব্যবস্থা শতভাগ নিশ্চিত করা না গেলে বাংলাদেশকে চরম খেসারত দিতে হবে।

আরও সংবাদ

Close